প্রিয় হোমনাবাসীর প্রতি ভালোবাসা ও কৃতজ্ঞতা জানাই - Alorpoth24.com | সত্য প্রকাশে কলম চলবেই

শিরোনাম

04 July, 2020

প্রিয় হোমনাবাসীর প্রতি ভালোবাসা ও কৃতজ্ঞতা জানাই

মইনুল ইসলাম মিশুক, হোমনা:
আমি সাংবাদিক মইনুল ইসলাম মিশুক, আমার ভাই ডাক্তার মাহবুবুর রহমান,  সহকারী সার্জন (৩৯তম ) হোমনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগদানের মাস খানিক পরই পরই পৃথিবীতে শুরু হয় মরণঘাতী অজানা ভাইরাসের প্রভাব, সেই থেকে প্রাণপ্রিয় হোমনার জনগণকে করোনা ভাইরাস মুক্ত রাখতে ভয়কে ক্ষীণ করে সর্বপ্রথম ফ্রন্টলাইনার যুদ্ধারুপে এগিয়ে আসে ডা. মাহাবুবুর রহমান। হোমনায় প্রথম করোনা লক্ষণীয় দুইজন ঝগড়ারচর ও খোদেদাউদপুর ব্যাক্তি থেকে নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআর প্রেরণ করে পোর্টার রফিকের মাধ্যমে ২রা এপ্রিল,২০২০। সেই নমুনা সংগ্রহের সাথে আমিও ছিলাম সংবাদকর্মী। এর পর থেকেই ডা. মাহবুবের নেতৃত্বে একটি টিম গঠন করে হোমনায় এ পর্যন্ত নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ৮১০জন, যার মধ্যে পজেটিভ ১৩৫ জন( সুস্থ ৭০জন এবং ডা. মাহবুব সহ ৬৫ জন আইসোলেশনে) আর বাকী ৬৩৪ জনের রিপোর্ট নেগেটিভ আসে এবং অপেক্ষমান রিপোর্ট ৪১জন। আরোও নমুনা সংগ্রহে এই টিম সার্বক্ষণিক সদাপ্রস্তত। সেবা ই ধর্ম  তাই ডাক্তার মাহবুবুর রহমান- মা, ভাই ,বোন নিজ পরিবার পরিজন,আত্মীয়স্বজনের  সাথে সাময়িক দেখা করা যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়ে মুঠোফোন ও সামাজিক যোগাযোগে খোঁজ খবর নিচ্ছে গত ৩মাস যাবৎ। ডা. মাহাবুবের সাথে আমার নিজের ও দেখা হয় না রোজার ঈদে পর থেকে, শুধুই ফোনে কথা হয়। ডা. মাহাবুব হোমনায় একাই বাসা ভাড়া নিয়ে থাকছে, নিজের কষ্টকে উপেক্ষা করে, রাত কি দিন কি রাত, সেবা দিয়ে যাচ্ছে প্রিয় হোমনাবাসীকে। হোমনায় বাসা ভাড়ার ব্যাপারে আমার পরিবারের সম্মতি ছিল না, কিন্তু ডা. মাহাবুব বলতো আমি শ্রীমদ্দি থেকে সেবা দিতে পারবোনা যাতায়াত সমস্যা হবে। কখন কোন সময় আমার প্রিয় হোমনার মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়লে আমাকে আসতে দেরি হলে আর রোগীর কিছু হয়ে গেলে আমি নিজেকে ক্ষমা করতে পারবোনা বলেই বাসা ভাড়া নেই। চলমান সেবা প্রদান করতে গিয়ে ডাক্তার মাহাবুব হঠাৎ করে কিছু দিন যাবৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। করোনা লক্ষণের নমুনা পজেটিভ আসে গতকাল (৩-৭-২০)। এখন ভাড়া বাসায় আইসোলেশনে  নিবিড় পর্যবেক্ষণে আছেন। আল্লাহর রহমত ডাক্তার মাহবুবুর রহমানের শারীরিক অবস্থা এখন মোটামুটি ভালো আছে। ডা.মাহাবুব করোনা পজেটিভ আসার পর সেই খবর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও সাংবাদিকবৃন্দ সহ যার যার প্রোফাইল, পত্রিকায় ভালোবাসার আবেগ ক্রন্দন ছড়িয়ে দিয়ে দোয়া চেয়েছেন। এখানে প্রিয় হোমনাবাসী এই ডাক্তারের প্রতি মহিয়ান ভালোবাসার ছোঁয়াকে আমার পরিবার ও আমি সাংবাদিক মইনুল ইসলাম মিশুক কৃতজ্ঞতা সাথে স্মরণ করছি। আপনাদের প্রিয় ডাক্তার সুস্থ হয়ে আবারও সেবা প্রদান করতে আপনাদের মাঝে ফিরে আসবে আল্লাহর কাছে দোয়া প্রার্থনা করি।

No comments:

Post a Comment