ওসি আমিনুল ইসলামের ফোনে পালিয়ে গেল কিস্তি নিতে আসা দুই এনজিও কর্মী - Alorpoth24.com | সত্য প্রকাশে কলম চলবেই

শিরোনাম

05 June, 2020

ওসি আমিনুল ইসলামের ফোনে পালিয়ে গেল কিস্তি নিতে আসা দুই এনজিও কর্মী


ছবিঃ সংগৃহীত 
মোঃ আল-আমিন, গাজীপুর :  গাজীপুরের টঙ্গীর মরকুন টেকপাড়া এলাকায় সরকারি নির্দেশনা অমান্য আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে ঋণের কিস্তি নিতে আসা দুই এনজিও কর্মী টঙ্গী পূর্ব থানার ওসি মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম এর ফোন পেয়ে পালিয়ে যায়।
জানা গেছে, আজ সকালে সিডর বাংলাদেশ নামের একটি এনজিওর দুই কর্মী ঋণের কিস্তি নিতে আসে। এ সময় এনজিওর ঋণ নেয়া সদস্যরা ঋণের কিস্তি পরিশোধে অপারগা প্রকাশ করে। এক পর্যায়ে এনজিওর দুই কর্মী বলেন, আমরা সরকারি নির্দেশনা নিয়ে এসেছি। সরকারি নির্দেশনার কাগজ দেখতে চাইলে এসময় ওই দুই কর্মী ভুয়া দুটি কাগজ দেখায়। যাতে কোন সরকারি সিলমোহর অথবা কোন সচিব পর্যায়ের কারো স্বাক্ষর ছিল না।
এনজিওর সদস্য মোসাঃ আনিসা বেগম জানান, আমরা সিডর বাংলাদেশ নামের একটি এনজিও ঋণ নিয়ে আমাদের ভাগ্যের চাকা সচল করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু দেশের এই দুরবস্থার সময় আমরা কোন কাজকর্ম করতে পারছিনা। আমাদের সংসার নিয়ে চলতেই হিমশিম খেতে হচ্ছে। এ সময় আমাদের পক্ষে ঋণের কিস্তি দেয়া কোনভাবেই সম্ভব নয়। সরকার বলেছে এই পরিস্থিতিতে কোন ভাবেই ঋণের কিস্তি নেয়া যাবেনা। এমন কথা বলাতে কোনভাবেই এনজিও-র দুইকর্মী ঋণের কিস্তি ছাড়া যাবে না বলে হুঁশিয়ারি দেন। এমতাবস্থায় একপর্যায়ে এনজিওর সদস্যরা সহযোগিতা চেয়ে টঙ্গী পূর্ব থানার ওসি মোহাম্মদ নুরুল ইসলামকে ফোন দিয়ে সাহায্য চায়।
এসময় ওসি ফোনে বলেন, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী কোনভাবেই ঋণের কিস্তি নিয়া যাবেনা বলে হুঁশিয়ারি দেন। অবস্থা বেগতীক দেখে এসময় পালিয়ে যায় এনজিওর ওই দুই কর্মী। যোগাযোগ করা হলে সিডর বাংলাদেশের টঙ্গী এরিয়া ম্যানেজারকে দেয়া হলে তিনি এ বিষয় কোন সদউক্তর দিতে পারেননি।
টঙ্গী পূর্ব থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, দেশের ক্রান্তিকালে কোনভাবেই ঋণের কিস্তির আদায় করা যাবে না। এ মর্মে সরকারি কঠোর নির্দেশনা রয়েছে। পরবর্তী সরকারি নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত কোন কিস্তি আদায় চলবে না। এ ব্যাপারে টঙ্গী পূর্ব থানা সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী জনগণের পাশে থাকবে।


No comments:

Post a Comment