শ্রীপুরে জমি নিয়ে বিরোধে বাজারে শতাধিক দোকানঘর ভাংচুর ও লুটপাট - Alorpoth24.com | সত্য প্রকাশে কলম চলবেই

শিরোনাম

06 May, 2020

শ্রীপুরে জমি নিয়ে বিরোধে বাজারে শতাধিক দোকানঘর ভাংচুর ও লুটপাট



সাজেদুল ইসলাম, শ্রীপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি:
জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার সকালে মাগুরার শ্রীপুর উপজলোর লাঙ্গলবাঁধ বাজারে ঝিনাইদহের শৈলকূপা উপজেলার ধলহরাচন্দ্র্র ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান এর নেতৃত্বে অতর্কিত হামলা চালিয়ে শ্রীপুর উপজেলার ১নং গয়েশপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম মোল্যার বাজার কমিটির অফিস কক্ষসহ বাজারের অর্ধশত দোকানঘর ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট করেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে লাঙ্গলবাঁধ বাজারে মাগুরার ও ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়নে করা হয়েছে।
বাজারের ব্যবসায়ী ও ছাবিনগর গ্রামের বাসিন্দা আবদুর রাজ্জাক বিশ্বাস জানান, জমি-জমা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে সোমবার সন্ধ্যায় শৈলকুপার উপজেলার ৮নং ধলহরাচন্দ্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান বিশ্বাসের সমর্থক নতুনভূক্ত মালিথিয়া গ্রামের সুজন সরকারের সাথে একই গ্রামের গ্রামের শহীদের লাঙ্গলবাঁধ বাজারে সংঘর্ষ বাধে। এঘটনায় শ্রীপুর উপজলোর ১নং গয়েশপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল হালিম মোল্যার সমর্থক রুবেল ও জিনারুল শহীদের পক্ষ নিয়ে সুজনকে লাঞ্চিত করে।

এরই সূত্রধরে মঙ্গলবার সকালে ধলহরাচন্দ্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমানের নেতৃত্বে উক্ত ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রাম থেকে ৪ থেকে ৫ শত লোক জোটবদ্ধ হয়ে রামদা ,ছ্যানদা,লাঠি-সোটা ও ঢাল,সড়কি নিয়ে লাঙ্গলবাঁধ বাজারে হামলা চালায় । হামলাকালে প্রতিপক্ষরা গয়েশপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম মোল্যার ব্যবহৃত বাজার কমিটির অফিস ঘরসহ বাজারের অর্ধশত দোকানঘর ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটপাট করে। সেই সাথে তার (আবদুর রাজ্জাক) দোকান থেকে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায় হামলাকারীরা ।

বিষয়টিকে কেন্দ্র করে শৈলকুপার ধলহরাচন্দ্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও শ্রীপুরের গয়েশপুরের উভয় চেয়ারম্যান পরস্পর বিরোধী বক্তব্য দিয়েছেনে।
ধলহরাচন্দ্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান বিশ্বাস বলেন, হালিম চেয়ারম্যানের লোকজন সোমবার সন্ধ্যায় তার ইউনিয়নের নতুনভূক্ত মালিথিয়া গ্রামের সুজন সরকারের বাড়িতে হামলা করে। পরে মঙ্গলবার সকালে আবারও হামলা চালানোর জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিল এমন সংবাদে তার এলাকার লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে প্রতিপক্ষকে মোকাবেলা করতে এ হামলা চালিয়ে থাকতে পারে।

তবে গয়েশপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল হালিম মোল্যা বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে মাগুরা-১ আসনের এমপি সাহেব ও প্রশাসনের নির্দেশে লাঙ্গলবাঁধ বাজারে তার ইউনিয়নের লোকজন চেকপোষ্ট বসানোর জন্য বাজারের পাশেই গড়াই নদীর ঘাটে লোক পারাপার বন্ধ করতে গেলে মতিয়ার চেয়ারম্যানের লোকজন বাধা দেয়। এ নিয়ে বিরোধের কারণে মঙ্গলবার মতিয়ার চেয়ারম্যানের কয়েক শ’ লোক একজোট হয়ে বাজারে আমার অফিসসহ প্রায় অর্ধশত দোকানপাটে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাট চালিয়ে ব্যাপক ক্ষতিসাধন করে।এতে প্রায় ১৫-২০ লাখ টাকার ক্ষতি সাধন হয়েছে ।

শ্রীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মাহাবুবুর রহমান বলেন, তুচ্ছ ঘটনায় বাজারে কিছু ভাংচুর হয়েছে তবে পরিস্থিতি স্থিতিশীল রাখতে লাঙ্গলবাঁধ বাজারে শ্রীপুর ও শৈলকুপা উভয় থানার পুলিশ দায়িত্ব। শৈলকূপা থানার ওসি বজলুর রহমান বলেন, পুনরায় যাতে কোন ঘটনা না ঘটে সে বিষয়ে পুলিশ তৎপর রয়েছে।

No comments:

Post a Comment