কোনাবাড়ীতে অতিরিক্ত ফি আদায়ের সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে অপপ্রচার - Alorpoth24.com | সত্য প্রকাশে কলম চলবেই

শিরোনাম

22 November, 2019

কোনাবাড়ীতে অতিরিক্ত ফি আদায়ের সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে অপপ্রচার


কোনাবাড়ী, গাজীপুর প্রতিনিধিঃ  
গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের কোনাবাড়ী শাহীন ক্যাডেট একাডেমীর জরুন শাখার  ২০২০ সালে এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরনে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ সংক্রান্ত  সংবাদ প্রকাশের পর স্কুলের ফেসবুক আইডি থেকে( কোনাবাড়ী শাহিন ক্যাডেট একাডেমী)  প্রতিষ্ঠানটির প্রধান শিক্ষক ভূয়া তথ্য দিয়ে এলাকায় অপপ্রচার চালাচ্ছে।  
একদিকে সাংবাদিকদের সংবাদ প্রচার বন্ধ রাখতে অনুরোধ করছে। অন্যদিকে তার ফেসবুক আইডি থেকে অপপ্রচার চালাচ্ছে।
বিষয়টি নিয়ে এলাকায় চাঞ্চলকর অবস্থারর সৃষ্টি হয়েছে।
প্রসঙ্গত কোনাবাড়ী শাহিন ক্যাডেট একাডেমীর স্কুলের পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে বিভিন্ন কারণ দেখিয়ে  অতিরিক্ত ফি আদায় করছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।
মাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো ফি আদায়ের ক্ষেত্রে শিক্ষা বোর্ডের কোনও নিয়মনীতির তোয়াক্কা করছে না প্রতিষ্ঠানের পরিচালক। অতিরিক্ত ফি আদায় নিয়ে শিক্ষার্থী ও অভিভাবক মহলে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।
মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানায়, কেন্দ্র এবং বোর্ড ফি মিলিয়ে এসএসসির ফরম পূরণে বিজ্ঞান বিভাগে বোর্ড ফি ১৫০৫ টাকা ও কেন্দ্র ফি ৪৬৫ টাকা মোট ১৯৭০ টাকা, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে বোর্ড ফি ১৪১৫ টাকা, কেন্দ্র ফি ৪৩৫ টাকা মোট ১৮৫০ টাকা এবং মানবিক বিভাগে বোর্ড ফি ১৪১৫ টাকা ও কেন্দ্র ফি ৪৩৫ টাকা মোট ১৮৫০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।
গাজীপুরের কোনাবাড়ীতে প্রায় প্রতিষ্ঠানে ২০২০ সালে অনুষ্ঠিতব্য এসএসসি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে ফরম পূরণে কোচিংসহ নানা খাত দেখিয়ে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করছে বলে স্ব স্ব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের অভিযোগ।

আবার অনেকেই তাদের ছেলে-মেয়ের ভবিষ্যত শিক্ষা জীবনের কথা চিন্তা করে দার-দেনা করে টাকা দিতে বাধ্য হচ্ছেন। এতে অভিভাবকদের মধ্যে চরম ক্ষোভ ও হতাশা লক্ষ্য করা গেছে।
একাধিক অভিভাবক অভিযোগ করেন, শিক্ষকরা টাকা ছাড়া কিছুই বোঝেন না।  

এবিষয়ে প্রতিষ্ঠানের পরিচালক ও প্রধান শিক্ষক মোঃ রেজাউল সরদার মামুনের কাছে অতিরিক্ত ফি আদায়ের বিষয়ে  জানতে চাইলে তিনি বিব্রতকর তথ্য দিয়ে এড়িয়ে যেতে চান। এক পর্যায়ে তিনি  সাংবাদিকদের সাথে উত্তেজিত হয়ে কথা বলেন, এবং বলেন আমার প্রতিষ্ঠানের কোন রেজিস্ট্রেশন নেই, আমি মাত্র কোচিং করাই।  
কোচিং ফি হিসাবে মাসিক ৩৫০০ টাকা নেই।
গাজীপুর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোঃ শফিউল্লাহ  জানান,তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

No comments:

Post a Comment